মেথি কেন খাবেন?

4

যুগ যুগ ধরে মেথি দানা রান্নায় ব্যবহৃত হয়ে আসছে। শুধু খাবারের স্বাদই বাড়ায় না এটি। বরং শরীর সুস্থ রাখতেও কার্যকরী ছোট্ট মেথির দানাগুলো। ভেষজ হিসেবেও ব্যবহৃত মেথি।

অনেকেই হয়তো জানেন না, মেথিতে আছে প্রয়োজনীয় ভিটামিন এবং খনিজ উপাদানসমূহ। যা আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য খুবই উপকারী।

মেথি কীভাবে খাবেন?

একটি প্যানে মেথির বীজ নিয়ে ভালো করে কিছুক্ষণ ভাজুন। তারপর চুলা বন্ধ করে মেথি কিছুটা ঠান্ডা করে ব্লেন্ডারে এই বীজগুলো গুঁড়ো করে নিন।

এবার এক গ্লাস হালকা গরম পানিতে ১ চা চামচ মেথি গুঁড়ো মিশিয়ে পান করুন। বেশি উপকারিতা পেতে সকালে খালি পেটে পান করুন এই পানীয়টি।

মেথি কেন খাবেন?

  • মেথিতে থাকে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার। যা আপনার পেট দীর্ঘক্ষণ ভরা রাখবে। এর ফলে অতিরিক্ত খাবার গ্রহণের প্রবণতা কমবে। তাই ওজন কমবে দ্রুত।
  • মেথি মেশানো পানি খেলে আপনার শরীর থেকে ক্ষতিকারক টক্সিনগুলো বের হয়ে যাবে। এর ফলে আপনার অন্ত্রের গতিপথ উন্নত হবে এবং হজম ক্ষমতা বাড়বে। এটি হজমের অন্যান্য সমস্যার মধ্যে কোষ্ঠকাঠিন্য, বদহজম প্রতিরোধ করে।
  • ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখার এক দুর্দান্ত প্রতিকার হলো মেথি। রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে সহায়তা করে মেথি। এই বীজে অ্যামিনো অ্যাসিড থাকে, যা অগ্ন্যাশয়ে ইনসুলিন নিঃসরণ বাড়ায়। এর ফলে রক্তে শর্করার মাত্রা কমতে শুরু করে।
  • মেথির পানীয় নিয়মিত খাওয়ার ফলে কিডনি পাথর নিরাময়ে সহায়তা করে। মেথি বীজ কিডনির স্বাস্থ্যের উন্নতিতে সহায়তা করে। উত্তর আফ্রিকাতে, মেথির বীজ কিডনির পাথর প্রতিরোধ ও চিকিৎসায় যুগ যুগ ধরে ব্যবহৃত হয়ে আসছে।
  • এক সমীক্ষায় দেখা গেছে, মেথি বীজে থাকা পুষ্টি উপাদানসমূহ কিডনিতে থাকা ক্যালসিকেফিকেশন উল্লেখযোগ্যভাবে হ্রাস করে। এর ফলে কিডনিতে পাথর জমে না।
  • মেথির বীজে থাকা পুষ্টিগুণ চুলের বৃদ্ধিতে সহায়তা করে। মেথির পানীয় নিয়মিত পান করলে শরীর যেমন পুষ্টি পাবে; ঠিক তেমনই মেথি হেয়ার প্যাক চুলে ব্যবহার করলে রুক্ষ-শুষ্ক চুল হবে ঝলমলে। এ ছাড়াও খুশকিসহ মাথার ত্বকের যাবতীয় সমস্যাও দূর হয় মেথির গুণে।
  • মেথিতে প্রদাহ বিরোধী বৈশিষ্ট্য আছে। ফলে গ্যাস্ট্রিক-বদহজমের মতো সমস্যা দূর করে এটি।
  • মেথির পানীয় ত্বকের জন্যও উপকারী। মেথি আপনার হজম সিস্টেমে কাজ করে এবং আপনার শরীর থেকে সমস্ত ক্ষতিকারক টক্সিনগুলো সরিয়ে দেয়। এটি ব্রণ এবং অন্যান্য অনেক ত্বকের সমস্যা যেমন- বলিরেখা, দাগসহ মেছতাও প্রতিরোধ করে।
  • একটি সমীক্ষা অনুসারে, মেথি খেলে স্তন্যদানকারী নারীদের স্তনে দুধের উৎপাদন বাড়ে।
  • মেথি বীজের মধ্যে প্রাকৃতিক দ্রবণীয় ফাইবার আছে। যা হৃদয়ের জন্য ভালো। এর ফলে হার্ট অ্যাটাক থেকে রক্ষা পাবেন। মেথি বীজে থাকা পুষ্টিগুণ অস্বাভাবিক রক্ত জমাট বাঁধাও রোধ করে, যা হার্ট স্ট্রোকের কারণ হতে পারে।
  • মেথির পানি পান করলে রক্তে খারাপ কোলেস্টেরল কমে। যা হার্টের সমস্যার ঝুঁকি রোধ করে।
  • তবে আপনি যদি গর্ভবতী হন, এটি খাওয়ার আগে আপনার ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে তবেই পান করুন।

তথ্যসূত্র: বোল্ডস্কাই/ওয়েবএমডি।

Leave A Reply

Your email address will not be published.