জরুরি ভিত্তিতে করোনাকালে এনআইডি দিচ্ছে ইসি

61

ঢাকা: করোনাকালে জরুরি ভিত্তিতে নাগরিকদের ভোটার করে জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) সরবরাহ করছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এক্ষেত্রে সরকার ঘোষিত কঠোর বিধি-নিষেধের মধ্যেও সপ্তাহে একদিন করে অফিস খোলা রেখে এ সেবা দিচ্ছেন সংস্থাটির মাঠ কর্মকর্তারা। শিক্ষার্থী, প্রবাসী ও টিকাদানে ইচ্ছুকরা অগ্রাধিকার পাচ্ছেন।

জানা গেছে, রাজধানীতে প্রতি মঙ্গলবার এ সেবা দেওয়া হচ্ছে। এছাড়া রাজধানীর বাইরে একেক থানা বা উপজেলা নির্বাচন অফিস একেক দিন সেবা দেওয়ার জন্য অফিস খোলা রাখা হচ্ছে।কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, গত ৭ জুলাই এক অনলাইন বৈঠকে মাঠ পর্যায়ে এনআইডি সেবা সতর্কতা অবলম্বন করে চালু রাখার সিদ্ধান্ত দেয় ইসি। এতে টিকা কার্যক্রম, বিদেশ গমন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তি কার্যক্রম ইত্যাদির জন্য জরুরি ভিত্তিতে সেবা দিতে বলা হয়। সেজন্য কর্মকর্তারা সপ্তাহে একদিন অফিস খোলা রেখে সশরীরে কার্যক্রম পরিচালনা করছেন।

উত্তরা থানা নির্বাচন কর্মকর্তারা মো. নজরুল ইসলাম বলেন, কমিশনের নির্দেশনার পর আমরা নিজেরা ঠিক করে নিয়েছি সপ্তাহের কোন দিনটিতে অফিস খোলা রেখে কার্যক্রম চালানো হবে। এ ক্ষেত্রে ঢাকা মহানগরে প্রতি মঙ্গলবার সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত অফিস খোলা রাখা হচ্ছে। বিজ্ঞপ্তি দিয়ে আমরা জানিয়েও দিচ্ছি। এছাড়া ঢাকার বাইরেও যে যার সুবিধা মতো দিনটিতে কাজ করছেন অফিস খোলা রেখে।

ডেমরা থানা নির্বাচন কর্মকর্তা আল আমিন জানান, এনআইডি সেবা দেওয়ার জন্য আমরা অগ্রাধিকার দিচ্ছি। এক্ষেত্রে যারা ভোটার হননি, অথচ এনআইডি প্রয়োজন; তাদের প্রথমে ভোটার করে নেওয়া হচ্ছে।

এজন্য প্রথমে অনলাইন থেকে ভোটার হওয়ার ফরম ডাউনলোড করে পূরণ করতে হবে। তারপর সেটি নিয়ে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিকে প্রয়োজনীয় দলিল নিয়ে সশরীরে এসে জমা দিয়ে ছবি তোলা এবং অন্যান্য কার্যাদী সম্পন্ন করতে হবে।

ইসির অতিরিক্ত সচিব অশোক কুমার দেবনাথ বলেন, টিকা কার্যক্রম, বিদেশ গমন, শিক্ষার্থিদের ভর্তি কার্যক্রম যাতে ব্যাহত না হয়, সেজন্যই এনআইডি চালু রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছে। তবে কর্মকর্তাদের সর্বোচ্চ সতর্ক থেকে কাজ করতে বলা হয়েছে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.