শক্তিশালী ইংল্যান্ডের সাথে লড়াই করতে প্রস্তুত অস্ট্রেলিয়া

11

স্পোর্টস ডেস্ক: ইংল্যান্ডের মাটিতে ওয়ানডে এবং টি-টোয়েন্টি সিরিজে মুখোমুখি হওয়ার আগে স্বাগতিকদের ভাসিয়েছেন জাস্টিন ল্যাঙ্গার। অস্ট্রেলিয়ার এই কোচের চোখে ইংলিশরা ভয়ঙ্কর দল। তবে স্বাগতিকরা ভয়ংকর হলেও, তার দলও টক্কর দিতে প্রস্তুত।

সাউদাম্পটনে শুক্রবার (৪ সেপ্টেম্বর) শুরু হবে তিন ম্যাচ সিরিজ। এরপরই তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে লড়বে ইংল্যান্ড এবং অস্ট্রেলিয়া। যা শুরু হবে ১১ সেপ্টেম্বর থেকে। সবকটি ওয়ানডে হবে ম্যানচেস্টারে।

সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টিতে মাঠে নামার আগে মঙ্গলবার (১ সেপ্টেম্বর) নিজেদের মধ্যে ভাগ হয়ে প্রস্তুতি-ম্যাচ খেলেছে অস্ট্রেলিয়া। ঝড়ো ব্যাটিংয়ে সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছেন মার্নাস লাবুশেন ও অ্যালেক্স কেয়ারি।

দুই ক্রিকেটারদের এমন সেঞ্চুরি দলের ব্যাটিং গভীরতা ফুটিয়ে তুলেছে। দলের পারফরম্যান্সেও সন্তুষ্ট ল্যাঙ্গার। তবে, প্রতিপক্ষের শক্তি সম্পর্কেও সতর্ক তিনি। সংবাদ সম্মেলনে বুধবার তিনি প্রসংশা করেছেন ইংল্যান্ডের অধিনায়ক ইয়ন মরগানকে।

ল্যাঙ্গার বলেন, ইংল্যান্ড ভয়ঙ্কর দল। ইয়ন মরগানের খেলার ধরন দারুণ। প্রথম বল থেকেই সে মারতে শুরু করে। তারা কিছু ভালো তরুণ খেলোয়াড় পেয়েছে এবং দলে অভিজ্ঞ কয়েকজনকেও রেখেছে। আমরা জানি, কয়েক বছর ধরে তারা বিশ্বের সেরা ওয়ানডে দল।

ইংল্যান্ডে অস্ট্রেলিয়ার সবশেষ সীমিত ওভারের ক্রিকেট খেলার অভিজ্ঞতা সুখকর নয়। দুই বছর আগে পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হয়েছিল অজিরা। এরপর একমাত্র টি-টোয়েন্টিতেও হেরেছিল অ্যারন ফিঞ্চ-গ্লেন ম্যাক্সওয়েলরা।

গত বছর ইংল্যান্ডে হওয়া বিশ্বকাপে অস্ট্রেলিয়া বিদায় নেয় সেমিফাইনাল থেকে। স্বাগতিক ইংল্যান্ডের কাছেই হেরেছিল অ্যারন ফিঞ্চের দল। তবে দল এবার প্রত্যাশা পূরণ করতে প্রস্তুত বলে মনে করেন ল্যাঙ্গার।

ল্যাঙ্গার বলেন, দুই বছর আগে আমরা এখানে এসেছিলাম এবং ৫-০ ব্যাবধানে উড়ে গিয়েছিলাম। গত বছর এখানে এসে তিন ম্যাচের দুটিতে জিতেছিলাম, কিন্তু (বিশ্বকাপের) সেমি-ফাইনালে বড় ম্যাচটাতেই জিততে পারিনি। সামনে কি অপেক্ষা করছে, আমরা জানি এবং এর জন্য আমরা প্রস্তুত থাকব।

Leave A Reply

Your email address will not be published.