সিরিয়ায় হামলার হুঙ্কার তুরস্কের

3

আর্ন্তজাতিক ডেস্ক: তুরস্ক দীর্ঘ দিন ধরে কুর্দি যোদ্ধাদের সাথে সামরিক সম্পর্কের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের নিন্দা জানিয়ে আসছে। তারই জের ধরে তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত কাভুসোগলু বলেছেন, কুর্দিশ ওয়াইপিজি মিলিশিয়াদের বিরুদ্ধে উত্তর সিরিয়ায় সামরিক অভিযান চালানোর অঙ্গীকার করেছে তুরস্ক। এই অঞ্চল থেকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সেনা প্রত্যাহারের উপর সিরিয়ায় সামরিক অভিযানে তুরস্কের প্রতিশ্রুতি পূরণ নির্ভরশীল নয়।

তুরস্কের এনটিভি টেলিভিশনে এক সাক্ষাৎকারে বৃহস্পতিবার কাভুসোগলু বলেন, আঙ্কারার কাছে সন্ত্রাসী গোষ্ঠী হিসেবে বিবেচিত ওয়াইপিজির কাছ থেকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সম্পূর্ণ অস্ত্র ফিরিয়ে নেবে এটা আশা করাটা বাস্তবসম্মত হবে না। কুর্দি যোদ্ধাদের বিরুদ্ধে আক্রমণে তুরস্ক এগিয়ে যাবে যদি যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশটি থেকে সৈন্য প্রত্যাহারে বিলম্ব করে যুক্তরাষ্ট্র। কাভুসোগলু আরও বলেন, তুর্কিরা কুর্দিদের গণহত্যা করতে পারে এমন হাস্যকর ও অবাস্তব অজুহাতে যদি সেনা প্রত্যাহার করা না হয় তবে আমরা আমদের সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করব। আমরা মাঠে ও টেবিলে অঙ্গীকারাবদ্ধ, আমরা অভিযানের সময় নির্ধারণ করব এবং আমরা কারো কাছ থেকে অনুমতি নেবো না।

উল্লেখ্য, ওয়াইপিজি ও এর রাজনৈতিক শাখা কুর্দিশ ডেমোক্র্যাটিক ইউনিয়ন পার্টিকে (পিওয়াইডি) ‘সন্ত্রাসবাদী দল’ হিসেবে বিবেচনা করে তুরস্ক এবং নিষিদ্ধ ঘোষিত কুর্দিস্তান ওয়ার্কার্স পার্টির (পিকেকে) সাথে তাদের সম্পর্ক রয়েছে বলে মনে করে দেশটি।

সূত্র: আলজাজিরা

Leave A Reply

Your email address will not be published.